Community Women's Blog

We Stand for Equality, Secularism and Justice


Leave a comment

Women’s rights campaigners echoed the voices of 300+ BAME victims & survivors of abusive religious related practices & codes: ‘Who will listen to our voices?’

End of Year Update on Campaign to Dismantle Parallel Legal Systems

By Rumana Hashem

Over 300 women of Black and Minority communities, abused by religious bodies such as Sharia Councils in the UK, have signed a statement opposing Sharia courts and religious bodies, warning of the mounting threats to their rights and to their collective struggles for security and independence. The letter published on 14 December 2016 on Open Democracy 50.50 reads as below:

We are women who have experienced abuse and violence in our personal lives. Most of us come from Muslim backgrounds, but some of us come from other minority faiths.

We are compelled to voice our alarm about the growing power of religious bodies such as Sharia Councils and their bid for control over our lives. We oppose any religious body – whether presided over by men or women – that seeks to rule over us: because they do not have any authority to speak or make decisions on our behalf and because they are not committed to women’s rights and social justice. Whether we are women of Muslim, Hindu, Sikh or Christian faiths or of no faith, we have much in common with each other in the face of cruelty, tyranny and discrimination in our families, in our communities, and in the wider society. Many of us are deeply religious, but for us religion is in our hearts: a private matter between us and our God. Religion is not – and must not be – something that can be used to deny us our freedom or the little pieces of happiness that we find by mixing and borrowing from many different traditions and cultures which give meaning to our otherwise difficult existence.

We know from personal experiences that many religious bodies such as Sharia Councils are presided over by hard line or fundamentalist clerics who are intolerant of the very idea that women should be in control of their own bodies and minds. These clerics claim to be acting according to the word of God: but they are often corrupt, primarily interested in making money and abuse their positions of power by shaming and slandering those of us who reject those aspects of our religions and cultures that we find oppressive. We pay a huge price for not submitting to domestic violence, rape, polygamy and child abuse and other kinds of harm. For this reason alone, we are fearful of religious laws and rulings from such bodies. Our experience in our countries of origin and in our communities tells us that they are deeply discriminatory and divisive. They will weaken our collective struggles for security and independence.

We struggle to fit into this country and to educate our children, especially our daughters, and to protect them and give them a better life. We struggle to have our experiences of violence and abuse addressed properly in accordance with the principles of equality and justice for all. We do not wish to be judged by reference to fundamentalist codes that go against our core values of compassion, tolerance and humanity. We do not want to go backwards or to be delivered back into the hands of our abusers and those who shield them.

Many of us have not made public comments on this issue, because we are afraid of the consequences of doing so openly. All of us have faced abuse and we are desperately trying to rebuild our lives in the face of constant and continuing threats and trauma. Some of us have used only our first names to support this statement, but we feel strongly enough about this matter to do so.

We do not want Sharia Councils or other religious bodies to rule our lives. We demand the right to be valued as human beings and as equals before one law for all. We demand the right to follow our own desires and aspirations.

 

To view the names of the signatories and the nature of human rights violation and abuse experienced by individual signatories, please check out the article: The Sharia debate in the UK: who will listen to our voices?

 

In the meantime the coalition of women’s rights campaigners against parallel legal systems and Sharia Councils in the UK has launched a fresh campaign on social media for One Law for ALL which went viral two days before the closure of final evidence submission to Home Affairs Select Committee. The online campaign appeared on the same day as the letter from 300+ abused women opposing Sharia courts in the UK was published on Open Democracy.  The campaign by secular women’s rights campaigners on twitter and Facebook preceded by a hash sign “One Law for ALL”, ending with a hash sign “Struggle Not Submission” – a slogan used by the ex-WAF  members  , echoed the voices of 300 BAME victims and survivors of abusive practices and codes of religious bodies. The power of the campaign is in the slogans and the placards written and made by the women’s rights campaigners who experienced various forms of oppressions by Sharia and religious codes and practices.

 

They said: “injustice is injustice even when it comes from people of colour”, “our community women do not want to be re-victimised by Sharia judges”, “minority women are not extensions of the ‘community’, regressive imams & Sharia judges – they are citizens with rights”, “it is racist to fob off minority women to kangaroo courts”, “polygamy is abuse and violation of women’s Rights”, “Sharia law legitimises under-age marriage & honour-based violence against women”, “the impunity that Sharia courts enjoy must be ended”, “listen to women who know: don’t allow them to be silenced by anyone” . “By accommodating Sharia courts and Betei Din, the UK government is itself in breach of its obligations to gender equality”.

 

Besides, Maryam Namazie of One Law for All lodged supplementary written submission of evidence to Home Affairs Select Committee (HASC) Inquiry into Sharia Councils. And, on the final day of evidence supplementary evidence submission, Prgana Patel of Southall Black Sisters has submitted further evidence and long testimonies of victims and survivors of parallel legal systems to HASC on 16 December 2016.  These latest submission by One Law for All and Southall Black Sister are undeniable. The final submissions of devastating evidence made a luminous end of the year 2016.  We shall hope that these last minute yet detailed and powerful evidences will enlighten the blind government and the allegedly bias Home Affairs Select Committee. We can hope for a bright, enlightened, equal, free, fair and tolerant new year.

Hope, Peace and Happy wishes to all Community Women’s Blog readers for 2017!

Read more:

Sharia courts have no place in UK family law. Listen to women who know

https://www.theguardian.com/commentisfree/2016/dec/14/sharia-courts-family-law-women

Supplementary written evidence submitted by One Law for All http://data.parliament.uk/writtenevidence/committeeevidence.svc/evidencedocument/home-affairs-committee/sharia-councils/written/44036.html

#OneLawforAllBecause  #StruggleNotSubmission

Advertisements


1 Comment

Press Release: Zero Tolerance to Sexual Violence – Protest against Sexual Assualts on Women

On Tuesday, 21 April,  about 70 protesters rallied at the Shaheed Minar at Altabl Ali park at Tower Hamlets to condemn the organised sexual assaults on women which was committed against 20 women by identifiable perpetrators during the celebration of Bangla new year in Dhaka. The powerful protest was co-organised by Nari Diganta and Jubo Union, UK.  Nari Diganta activist, Nilufar Yasmin, writes a Bangla report of the protest as follows.

Rally against sexual assaults on women at Altab Ali park. Courtesy: P V Dudman

Rally against sexual assaults on women at Altab Ali park. Courtesy: P V Dudman

পহেলা বৈশাখে নারীর উপর যৌন হয়রানীর প্রতিবাদে নারী দিগন্ত যুব ইউনিয়নের বিক্ষোভ সমাবেশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে নারী নির্যাতন ও নারীর উপর যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করে উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্যের নারী দিগন্ত এবং যুব ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সর্বস্তরের জনগণ। প্রতিবাদ সভায় সকল বক্তাই এই ধরনের পৈশাচিক ন্যাক্কারজনক হামলার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে।

একুশে এপ্রিল মঙ্গলবার বিকালে পূর্ব লন্ডনের আলতাব আলী পার্কে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ ও বিক্ষোভে উপস্থিত সকল বক্তাই প্রায় একই সুরে সেদিন পুলিশের যে সকল সদস্য কর্তব্যে অবহেলা করেছে তাদেরকে উপযুক্ত জবাবদিহিতার আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন। এছাড়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কর্তব্যে অবহেলার যে অভিযোগ উঠেছে সে বিষয়ে জবাবদিহিতার ব্যবস্থা করার জন্য সক্রিয় উদ্যোগ নেয়ার দাবী জানানো হয়।

Nari Diganta's publicity Secretary Nilufa Hasan condemns organised violence against women.

Nari Diganta’s publicity Secretary Nilufa Hasan condemns organised violence against women.

নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে বিভিন্ন শ্লোগান সম্মিলিত প্ল্যাকার্ড বহন করে সমাবেশে বলা হয়, বার বার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় মুক্তমনা মানুষকে হত্যা, নারীর উপর আক্রমন কোনক্রমেই গ্রহণযোগ্য নয় এবং কর্তৃপক্ষের এই ধরনের দায়িত্বহীনতা মুক্তিযুদ্ধে অর্জিত বাংলাদেশের মূল লক্ষ্যকে পিছনে ঠেলে দিচ্ছে বলে বক্তারা উল্লেখ করেন। যুগ যুগ ধরে জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে বাংলা নববর্ষের উৎসব পারষ্পরিক সৌহার্দ ও সম্প্রীতির সেতুবন্ধন তৈরী করে। পহেলা বৈশাখে ঢাকায় নারীর উপর যে যৌন হামলা হয়েছে তা শুধু নারীর উপর হামলা নয়, এই হামলা অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও বাঙালী সংস্কৃতির উপর আঘাত, এই আঘাতকে প্রশ্রয় না দিয়ে পাল্টা আঘাত অর্থাৎ কঠোর হস্তে দমনের পক্ষে সকলেই মত দেন। আইনের মাধ্যমে দোষীদের শাস্তি না দিলে এই প্রবণতা কখনো বন্ধ হবেনা। পহেলা বৈশাখে নারীদের উপর যৌন নিপীড়নকারীদের সাংগঠনিক পরিচয় নিয়ে বিতর্ক না করে অবিলম্বে তাদের প্রেফতার করে কঠোর শাস্তির দাবী জানিয়েছে সবাই।

সকল সময়ে দেশের চিহ্নিত কথিত ধর্মীয় নেতারা নারীদের প্রতি অসম্মানজনক কটূ মন্তব্য করে নিপিড়কদের পরোক্ষভাবে উৎসাহ দিচ্ছে। আইন করে নারী বিদ্বেষী বক্তব্যকারীদের শাস্তির ব্যবস্থা না করলে এই ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা বন্ধ করা যাবেনা বলে সকলেই মত দিয়েছেন।

Agitators at the protest at Altab Ali park. Photo credit: Tanvir Ilias

Activists at the protest at Altab Ali park. Courtesy: Tanvir Ilias

যুব ইউনিয়নের যোবায়দা নাসরিনের পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ডা: রফিকুল হক জিন্নাহ, আবু মুসা হাসান, নারী দিগন্ত নেত্রী নাসিমা কাজল, ডঃ রুমানা হাশেম, নিলুফা ইয়াসমীন, পুষ্পিতা গুপ্ত, পিয়া মায়েনিন, কমুনিস্ট নেতা মসউদ আহমেদ, সত্যব্রত দাশ স্বপন, নারী চেতনার নাজনিন সুলতানা শিখা, অজন্তা দেব রায়, যুব ইউনিয়নের নাসরিন এ মনজুরী এবং শাহরিয়ার বিন আলী। আরো বক্তব্য রাখেন আসীম চক্রবর্তী, সাঈদা সিমি, স্মৃতি আজাদ, গোলাম কবীর, সুশান্ত দাসগুপ্ত,  রীনা মোশাররফ, নূরুল ইসলাম, পলিন মাঝি প্রমুখ।

Agitators at the protest at Altab Ali park. Courtesy: Tanvir Ilias

Agitators at the protest at Altab Ali park. Courtesy: Tanvir Ilias

লাঞ্চিত নারীকে বাঁচাতে গিয়ে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি লিটন নন্দী যে আহত হয়েছেন, তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে প্রতিবাদ সভায় এই ধরনের ঘটনায় সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়।

ভিডিওতে অপরাধ শনাক্ত করা গেলেও পুলিশ আজও অপরাধীদের ধরতে পারেনি, যতদিন অপরাধীরা ধরা পড়বেনা, শাস্তি হবেনা ততদিন আন্দোলন প্রতিবাদ চালিয়ে যাবে বলে বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত সকলে মতামত ব্যক্ত করেন।

Nari Diganta leaders hold placards against sexual violence against women. Courtesy: P V Dudman

Nari Diganta leaders hold placards against sexual violence against women. Courtesy: P V Dudman

Women agitators at the protest at Altab Ali park. Courtesy: Tanvir Ilias

Women agitators at the protest at Altab Ali park. Courtesy: Tanvir Ilias


Leave a comment

It is time to be loud and clear

Celebration of International Women’s Day 2015 at Nari Diganta

By Nazratoon Nayem

_MG_0193

Last Sunday, on 8 March 2015, the women in Movement for Equal Rights, Social Justice and Secularism at Nari Diganta have celebrated International Women’s Day 2015 with a diverse group of women and men belonging to 14 different ethnicities and nationalities in Britain. At a packed room of some 150 audience, the members of Nari Diganta have greeted Bengali creative women and renowned BME women’s rights campaigners at the Brady Arts and Community Centre in Tower Hamlets, London. The event was explicitly focused on secular Bengali women who have dedicated their lives to creative work and BME women’s empowerment in Britain and elsewhere.

Sarah Begum takes Nari Diganta to 'Amazon Souls'. Courtesy: Rumana Hashem

Sarah Begum takes audience from Brady Arts Centre to ‘Amazon Souls’ through her slides. Courtesy: Rumana Hashem

The unusual event of progressive Bengali women kicked in with a greetings from the Secretary, Nasima Kajol, and an opening message by the Chairperson of Nari Diganta, Shamima Begum. It followed by a compliment of International Women’s Day from a secularist-sociologist and BME women’s rights activist, Dr Rumana Hashem. Rumana invites Sarah Begum, an award winning young film-maker and a fellow of the Royal Geographical Society, to screen her documentary film about Amazonian life. Sarah took the audience to her film through a showreel and slides followed by a biographical speech, demonstrating the difference, passion and courage that a creative woman does posses in terms of freedom and women’s struggle for emancipation.

From right: Chandra Chakraborty,  Sarah Begum and Smrtiy Azad  spoke about their struggles as women in creative fields. Courtesy: Pijush Kuri

From right: Chandra Chakraborty, Sarah Begum and Smrity Azad spoke about their struggles as women in creative fields. Courtesy: Pijush Kuri

Sarah’s talk was followed by a creative women’s panel and a bilingual discussion by three creative women from three backgrounds including music, film and theater. The panel chaired by Nari Diganta’s legal adviser, Piara Mayenin, was attended by a proclaimed Bengali classical vocalist Chandra Chakraborty, the film-maker and explorer Sarah Begum, and Bengali performer, Smrity Azad. The creative panelists have made a point that Bengali creative women are not just performers who would perform to please men and the society. Rather, they are innovative women who posses transformative power, who made valuable contribution to their respective societies by overcoming hazardous barriers and by choosing creativity and performance as a way forward to emancipation and progress of women.

The discussion by the creative women was followed by a panel of prominent BME women’s rights campaigners and secularists. The panel formed by Gita Sahgal, the producer of War Crime File,and a writer and the Director of Centre for Secular Space, and Maryam Namzie, an Iranian Secularist and the Founder and Spokesperson of One Law for All and Fitnah – Movement for Women’s Liberation, was chaired by Bangladeshi women’s rights campaigner and a core group member at Nari Diganta, Rumana Hashem.

From the left: Gita Sahgal, Maryam Namazie and Rumana Hashem discussed the need for moving forward with a secular agenda for women's emancipation and BME women's empowerment in Britain. Courtesy: Pijush Kuri

From the left: Gita Sahgal, Maryam Namazie and Rumana Hashem discussed the need for moving forward with a secular agenda for women’s emancipation and BME women’s empowerment in Britain. Courtesy: Pijush Kuri

The event ends with a staggering cultural programme of Bengali dance, music and poetry by women and young girls. Finally the singing sensation Farzana Sifat appeared with her solo music, followed by a choir of the members of Nari Diganta.

Vocalist Farzana Sifat sings for the women at Nari Diganta. Courtesy: Pijush Kuri

Vocalist Farzana Sifat sings for the women at Nari Diganta. Courtesy: Pijush Kuri

The cultural event, presented by Nasima Kajol and Munjerin Rashid ended with a powerful choir ‘We remain undefeated, we will remain undefeated.’

Sunday’s IWD event at Brady Arts Centre was as unusual as festive, and was filled with lively music and songs of Bengali women. The diverse audience of a wide range of ethnicities, dressed up in their national outfits, have joined from Iran, India, Libya, Norway, Morocco, Poland, Pakistan, Spain, Sweden, Scotland, USA, and of course, Bangladesh and England.

Part of the mixed audience at Brady Arts Centre IWD2015 at Nari Diganta. Courtesy: Golam Rabbani

Part of the mixed audience at Brady Arts Centre IWD2015 at Nari Diganta. Courtesy: Golam Rabbani

Despite the delayed start and some alterations to the programme, audience have expressed their full-solidarity to the organisers and the women at Nari Diganta who have shown passion and ability to create a space for a mixed and secular audience in Tower Hamlets. The jolly composer of the event, Rumana Hashem started the evening by calling upon the audience to engage with the ideas of creative Bengali women who appeared on national dresses and on posh-colourful saris in festive mood. Dr Hashem says, explaining the importance of sari for Bengali women: ‘those who are new to Brady Arts and Community Centre or who joined us for the first time at Nari Diganta may get a culture shock by seeing Muslim Bengali women on fancy sari. Believe me it is our everyday dress and this dress demonstrates our professionalism back home. You got to take it easy. Note that we are Bengali women at work.’ The room broke into laughter and a festive breeze had been felt throughout the evening.

Two daughters of members of Nari Diganta perform for their mothers and sisters. Courtesy: Pijush Kuri

Two daughters of members of Nari Diganta perform for their mothers and sisters. Courtesy: Pijush Kuri

Inspite of threats of radicalism by the unexpected intruders who sneaked into the venue in the midst of the programme, without permission of the organisers, the festive atmosphere was obvious at the event. Both the audience and speakers remained calm and bold throughout. The support of the wonderful audience became apparent especially in their efforts of networking and friendly comments. The speakers and presenters were articulate in their statements that Bengali women are progressive, secular and not blind to male-dominated social norms and customs.

Young girls of Nari Diganta danced for the creative Bengali women. Courtesy: Pijush Kuri

Young girls of Nari Diganta danced for the creative Bengali women. Courtesy: Pijush Kuri

Vocalist Chandra Chakraborty declared, in her final comment, ‘indeed, women are the superiors in terms of their ability’. She argued that it is wrong to assume that men are higher than women in relation to ability of creativity and ethics of care. Even though it is mostly men who hold political power, women are the ones who have the real ability to do things innovatively and passionately. We must recognise women’s real power, she said.

Gita Sahgal addresses the mixed audience. Courtesy: Pijush Kuri

Gita Sahgal addresses the mixed audience. Courtesy: Pijush Kuri

In her remark about Nari Diganta, Gita Sahgal said that she was delighted to hear the powerful statements of the creative women and the secular ideas that they upheld. She thanked the women at Nari Diganta for taking a secular agenda in the question of women’s rights.

Maryam Namazie calls upon the women at Nari Diganta to take a bold step against patriarchy and religious oppression. Courtesy: Pijush Kuri

Maryam Namazie calls upon the women at Nari Diganta to take a bold step against patriarchy and religious oppression. Courtesy: Pijush Kuri

Maryam Namazie, the Iranian-born women’s rights campaigner and secularist, has similarly expressed her thankfulness to the organisers for their courage to create a space for secular practices and for overcoming religious barriers in Bengali women’s lives.

She said, in her complimentary speech on IWD, ‘It has been great to join you all.  We need to keep moving forward with a secular agenda from here’.

The pledge to women’s emancipation and secularism were apparent throughout the event. In her welcome message, Nari Diganta’s chairperson Shamima Begum Hena said:

‘I hope that you will enjoy the event and will stay with us. We are celebrating International Women’s Day at a juncture when our homeland, Bangladesh is burning, as many other countries. We are facing division and confrontation between the progressive and extremist forces. In such a situation women’s insecurity became most obvious in all of these countries. We remain vigilant and  we try to establish a clear position in the question of women’s rights there and here. We want to celebrate International women’s day by recognising the good work that our Bengali creative women are doing in Britain, overcoming their situation every day. We want also to scrutinise BME women’s situation in Britain.’

Part of the colourful audience at  Brady Arts Centre. Courtesy: Golam Rabbani

Part of the colourful audience at Brady Arts Centre. Courtesy: Golam Rabbani

She added, ‘We need to be critical and be careful to any uncritical solidarity. We need to avoid generalisation of BME women’s rights issues with all women in Britain. We want to be loud and clear about the real situation within which we work, and we want to hear how our creative women may make their voices against bigotry and oppressions heard. In a world of uncertainty, we need to be loud and clear about our mission, vision and achievements. I am very pleased to see that so many of you have come to our event, despite it being a Sunday.’

Following Hena, Dr Hashem invites everybody to join Sarah Begum’s talk. She added:

Sarah Begum attempts to connect her work with women's emancipation.  Courtesy: Pijush Kuri

Sarah Begum attempts to connect her work with women’s emancipation. Courtesy: Pijush Kuri

‘Sarah’s film is a politically informed documentary and it bears a highly political message of women’s empowerment and freedom. May I ask everybody please focus on the “theme” of the film rather than the “scene”’. In explaining the significance of the theme and the design of the programme, Rumana Hashem explains also that the programme was designed differently because it bore a political message for women’s empowerment, equal rights and bigotry-free society. She said: ‘We are a young organisation and only four years old. But as you would know, sometimes a four-year child can be more clever, bold, innovative, scrutinising and imaginative than many adults. We believe that today’s event would demonstrate this creativity and boldness of a four years old child. The design of our event is unusual and the theme is important. We hope that you will like it and you will bear with us.’

Nasima Kajol addressing audience during cultural programme. Courtesy: Pijush Kuri

Nasima Kajol addressing audience during cultural programme. Courtesy: Pijush Kuri

In commenting about IWD2015 at Nari Diganta, Nasima Kajol, the Secretary of the organisation told that: ‘We have tried to do something different, something new and something especial. I do not claim that it was a fully successful event in terms of Western discipline and order. Still I am pleased that we have done it differently than many traditional events in Tower Hamlets. One does not gain success in one day. I think that we are doing well as a young organisation. I am proud of our ability to unite in a secular and progressive political stand at Nari Digatna.’

Nasima Kajol and Munjerin Rashid jointly greeted the pleasant audience. Courtesy: Pijush Kuri

Nasima Kajol and Munjerin Rashid jointly greeted the pleasant audience. Courtesy: Pijush Kuri

The evening was filled with film, dialogue, music and dance with Creative Bengali Women speaking out against oppression and bigotry. It was partially sponsored by the Tower Hamlets Council, PCO Claims, Amifro Associates, Chambers of MM Hussain, and Hillside Travel. The organisers have greeted the sponsors with bouquet of flowers for the much needed support that the funders have provided to Nari Diganta as faithful friends and well-wishers.

The choir at Nari Diganta on International Women's Day 2015. Courtesy: Pijush Kuri

The choir at Nari Diganta on International Women’s Day 2015. Courtesy: Pijush Kuri

The daughters of the women at Nari Diganta performed for their mothers and sisters. Courtesy: Pijush Kuri

The daughters of the women at Nari Diganta performed for their mothers and sisters. Courtesy: Pijush Kuri

The IWD2015 Raffle draw. Courtesy: Pijush Kuri

The IWD2015 Raffle draw. Courtesy: Pijush Kuri


Leave a comment

যুক্তরাজ্যে প্রগতিশীল নারী সংগঠন নারী দিগন্তের সম্মেলন

Report of Nari Diganta’s Conference in Bangla

By Nilufa Yasmin Hasan

conference pic-5 Jan 2014নিলুফা ইয়াসমিন, লন্ডনঃ ‘মানব-মুক্তির পূর্ব শর্ত নারী মুক্তি’ এই শ্লোগানকে অঙ্গীকার হিসেবে প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় নিয়ে ব্রিটেনে প্রগতিশীল নারী সংগঠন নারী দিগন্ত’র প্রথম সম্মেলন গত ৪ জানুয়ারি পূর্ব লন্ডনের মাইক্রোবিজনেস সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে শামীমআরা হেনাকে সভাপতি ও নাসিমা কাজলকে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করে নারী দিগন্তের ২৫ সদস্যের কার্যকরি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

নারী নেত্রী শামীমআরা হেনার সভাপতিত্বে ও নাসিমা কাজলের পরিচালনায় সংগঠনের সম্মেলন ও পরে  মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। নারীবাদের নিরিখে বাংলাদেশের নারীদের অবস্থান শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মানবাধিকার নেত্রী নাইমা কায়েস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জোবাইদা নাসরিন কণা, কবি শামীম আজাদ, লেবার দলীয় নেত্রী শামসিয়া আলী ও সাংস্কৃতিক সংগঠক ডলি ইসলাম।

মানবাধিকার নেত্রী নাইমা কায়েস বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের নারী সমাজের মূল সমস্যা হলো সমতার অভাব। বাঙালি নারীদের ব্রিটেনেও এই সমস্যার প্রভাব লক্ষণীয়। মুক্তির লড়াইয়ে নারীদের সাহসী ভূমিকা নিতে হবে।

নারি দিগন্তের নব নির্বাচিত কার্যকরী সদস্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়য়ের শিক্ষক জোবাইদা নাসরিন কণা বাংলাদেশের নারী প্রগতির আন্দোলন ও মহিয়সী নারী বেগম রোকেয়ার চিন্তা ও চেতনার প্রতিফলন  এবং আর্ন্তজাতিক নারী সনদ সিডওর বাস্তবায়ন সম্পর্কে বাংলাদেশে বিদ্যমান সমস্যা নিয়ে বক্তব্য রাখেন।

কবি শামীম আজাদ ব্যক্তিগত জীবনের সংগ্রামশীলতাকে তার বক্তব্যে তুলে ধরে বলেন, আমার জীবনের প্রতিটি ক্ষণে আমি আমার স্বামী এবং সন্তানের মঙ্গলের জন্য নিজেকে কর্মব্যস্ত রেখেছি। নারী হিশেবে আমি আমার দায়িত্ব পালন করেছি। কিন্তু বাঙালি সমাজে নারীদের অধিকার এখনো পুরুষ শাসিত সমাজে অবহেলিত। তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, নারীদের অধিকার আদায় ও মুক্তির জন্য নিজেকেই সংগ্রামী ভূমিকা নিতে হবে।

লেবার দলীয় রাজনীতিক শামসিয়া আলী  ব্রিটেনের বহুজাতিক সমাজে  লড়াই করে নিজেকে কীভাবে এগিয়ে নিচেছন, তা অত্যন্ত প্রাঞ্জল ভাষায় সভায় তুলে ধরেন।

সম্মেলনে ২৫ সদস্যের কার্যকরি কমিটির মধ্যে আরও রয়েছেন সহ-সভাপতি রাজিয়া মান্নান, রুবি হক, ও আখি চৌধুরী।যুগ্ম সম্পাদক হিশেবে নির্বাচিত হয়েছেন আয়েশা মির্জা রকিব, কোষাধ্যক্ষ ফাতেমা রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহের আহমদ, সংগ্রাম বিষয়ক সম্পাদক জোবাইদা নাসরিন, প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক পুষপিতা গুপ্ত, আইনী সহায়তা সম্পাদক পিয়া মায়েনিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নিলুফা ইয়াসমিন হাসান, আর্ন্তজাতিক সম্পাদক ডা. শহিদা ইসলাম, ডেভলপমেন্ট সেক্রেটারি রুজিনা রুহুল, শ্বাস্থ ও পরিবেশ সম্পাদক ডা. নিলুফার খান, শিক্ষা ও সংস্কৃতি সম্পাদক মানজারীন রশিদ সনি।

নারী দিগন্তের কার্যকরী সদস্য হিসেবে আরও নির্বাচিত হয়েছেন নারী নেত্রি ডলি ইসলাম, শামিম আজাদ, ডঃ রুমানা রওশন হাশেম, হোসনে আরা মতিন, মেহের নিগার, রাজিয়া রহমান, রওশন ফেরদৌসী লিপি, শাবানা নার্গিস চৌধুরী কেয়া ও সাইদা খানম।উপদেষ্টা হিশেবে রয়েছেন নাইমা কায়েস, সৈয়দ এনামুল ইসলাম, মোহাম্মদ আবদুল হামিদ ।

সম্মেলনের বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা ছাড়াও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন সত্যেন সেন স্কুল অব পারফমিং আটর্সের শিক্ষাথীরা ও বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী  ইউকে সংসদের শিল্পীবৃন্দ। অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী ইমতিয়াজ আহমেদ রবীন্দ্রসঙ্গীত ও ডা. শাহিদা ইসলাম নজরুলসঙ্গীত পরিবেশন করেন।

উল্লেখ্য, নারী দিগন্ত প্রায় দুই বছর যাবত লন্ডনে বাঙালি নারী-উন্নয়নে প্রচার কাজ করছে।সম্মেলনে বিপুল সংখ্যক বাঙালি নারীর উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। এছাড়া লন্ডনের সংস্কৃতিকর্মী ও বিশিষ্টজনদের মধ্যে উপস্থিতি ছিলেন সাংবাদিক আবু মুসা হাসান, কবি হামিদ মোহাম্মদ, সৈয়দ রকিব আহমদ, সৈয়দ নিয়াজ আহমদ, সৈয়দ এনামুল ইসলাম, নুরুল ইসলাম, গোপাল দাশ, রুহুল আমিন, জামাল আহমদ খান, মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ, কবি মুজিবুল হক মনি, হোসনে আরা মতিন।

সম্মেলনে গৃহীত সাতটি প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে নতুন সদস্য সংগ্রহ, ব্রিটেনে দশটি শাখা গঠন, সাংগঠনিক দক্ষতা অর্জন, স্থায়ী অফিসের ব্যবস্থা, ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন, সংগঠনের লগো ও গঠনতন্ত্রকে আইনি সুরক্ষা দেয়া প্রভৃতি।

সাংগঠনিক প্রস্তাব

  • নতুন সদস্য সংগ্রহ, সদস্যপদ নবায়ন, শাখা গঠন প্রভৃতি কার্যক্রমের মাধ্যমে ব্রিটেনের সকল শহরে নারী দিগন্তকে বিস্তৃত করার উদ্যোগ নেয়া হবে।
  • আগামি দুই বছরে ৩০০ নতুন সদস্য এবং ১০টি শাখা গঠন করা হবে।
  • সদস্য ও নেতাদের সাংগঠনিক দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য এ বিষয়ে পড়াশোনা, প্রশিক্ষণ আয়োজন করা হবে।
  • সংগঠনের লন্ডনে একটি কেন্দ্রীয় স্থায়ী অফিস এবং বিভিন্ন এলাকা ও শহরে শাখা অফিস স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হবে।
  • প্রতিটি বিভাগীয় সম্পাদক নীজ নীজ বিভাগের জন্য ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠনের উদ্যোগ নেবেন।
  • কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি ও শাখা কমিটিগুলি প্রতি মাসে একটি করে মিটিং করার উদ্যোগ নেবে।
  • সংগঠনের নাম, লোগো এবং গঠণতন্ত্রকে আইনি সুরক্ষা দেবার উদ্যোগ নেয়া হবে।

ব্রিটেনে বাংলাদেশী নারীদের অবস্থা সম্পর্কে প্রস্তাব

  1. সর্বক্ষেত্রে নারীদের সমান মর্যাদা ও অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষে সভা সমাবেশ, ও আন্দোলনের উদ্যোগ নেয়া হবে।
  2. যেখানে নারীর প্রতি বৈষম্য, নির্যাতন ঘটবে সেখানেই প্রতিবাদ করা হবে। সদস্যরা নিজেরা কোন ধরনের বৈষম্য ও নির্যাতনে অংশ নেবে না।
  3. নারীদের শিক্ষা, চাকুরী, খেলাধুলা, সংস্কৃতি চর্চায় বাংলাদেশী নারীদের অংশগ্রহণ ও অর্জন বাড়ানো ও বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা দূর করার লক্ষে কার্যক্রম গ্রহণ করবে।
  4. বাংলাদেশী নারীদের অবাধে চলাফেরা, নীজেদের পছন্দমত জীবনাচরনের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষে কার্যক্রম গ্রহণ করবে।
  5. বাংলাদেশী নারীদের নানাবিধ সমস্যা সমাধানে আইনি সহায়তা, প্রচার-প্রচারনা, তদবির করা এবং বিভিন্ন সহায়তাকারী সংস্থায় সাইন পোস্টিং করবে।
  6. ব্রিটেনে বাংলাদেশি নারীদের সংগঠন গুলোর মধ্যে একতা ও সংহতি বৃদ্ধি এবং নারী ইস্যুতে একযুগে কাজ করার উদ্যোগ নেয়া হবে।
  7. ব্রিটেনের মূলধারার সমমনা প্রগতিশীল নারী ও অন্যান্য সামাজিক রাজনৈতিক সংগঠণের সাথে যোগাযোগ, সম্পর্ক স্থাপন এবং যৌথ ভাবে কাজ করার উদ্যোগ নেয়া হবে।

সভায় নারী দিগন্তের নবনির্বাচিত কার্যকরী সদস্যরা নারী নেত্রী রাজিয়া মান্নান, সাইয়দা মনিরা আখতার খাতুন এবং ডঃ রুমানা রওশন হাশেমের প্রস্তাবিত সংবিধানটি সংগঠনের প্রথম সংবিধান হিসেবে অনুমোদন করেন।